খুলনা চেম্বার আব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির উদ্যোগে “খুলনায় সম্পূর্ণ

বিনামূল্যে ক্যান্সার  রোগ নির্ণয় ও পরামর্শ প্রদান কর্মসূচী” পালন

 

99-99-14

অদ্য ২৩ আগষ্ট, ২০১৫ তারিখ রোজ রবিবার ভারতের বারাসাত ক্যান্সার রিসার্চ সেন্টার থেকে আগত ক্যান্সার বিশেষজ্ঞ দলের সহযোগীতায় খুলনা চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি খুলনাস্থ ইউনাইটেড ক্লাব প্রাঙ্গনে “সম্পূর্ণ বিনামূল্যে ক্যান্সার রোগ নির্ণয় ও পরামর্শ প্রদান কর্মসূচী” পালন করেছে। খুলনা চেম্বারের সভাপতি কাজি আমিনুল হক এর আন্তরিক প্রচেষ্টা ও সহ-সভাপতি মো: সাইফুল ইসলাম এর সার্বিক তত্বাবধানে ভারতীয় বিশেষজ্ঞ ডাক্তারগণ অদ্য তারিখ সকাল ৯-৩০ টা থেকে সন্ধ্যা ৬-০০ টা পর্যন্ত খুলনাসহ বিভিন্ন অঞ্চলের প্রায় ৫ শতাধিক রোগী দেখে তাদেরকে পরামর্শ প্রদান করেছেন। এরূপ জনহিতকর কর্মসূচী সফলভাবে পালনের নিমিত্তে খুলনা চেম্বারকে আন্তরিকভাবে পূর্ণ সহযোগীতা প্রদান করেছেন ডা: মোস্তফা কামাল, খুলনা ক্লাবের সাবেক সভাপতি কাজী মনিরুল হক এবং খুলনা চেম্বারের উর্দ্ধতন সহ-সভাপতি শরীফ আতিয়ার রহমান, সহ-সভাপতি গোপী কিষণ মুন্ধড়া, পরিচালকবৃন্দ শেখ আসাদুর রহমান, শেখ মাহাবুব রহমান, আবুল বাসার পাটওয়ারী, এস এম ওবায়দুল্লাহ, এস এম সাইফুল ইসলাম পিয়াস, আজিজুর রহমান, এম এ মতিন পান্না, মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন, মোঃ সিরাজুল হক, আলহাজ্ব মোঃ মোশাররফ হোসেন, মোঃ মোস্তফা কামাল পাশা, মোঃ তোফাজ্জেল হোসেন, বদরুল আলম মার্কিন, মোঃ মফিদুল ইসলাম টুটুল, মোঃ মোস্তফা জেসান ভুট্টো, জনাব শেখ মোঃ গাউসুল আজম, মোঃ আমিনুল ইসলাম (মুন্না), খান সাইফুল ইসলাম, এস এম খালিদ হোসেন ও দীপক কুমার দাস।

ট্রেড লাইসেন্স ফি মাত্রাতিরিক্ত বৃদ্ধির প্রতিবাদে খুলনা চেম্বারের মানববন্ধন কর্মসূচী পালন

99-99-12


খুলনা সিটি কর্পোরেশন কর্তৃক খুলনা’র সকল শ্রেণীর ব্যবসায়ীদের উপর ট্রেড লাইসেন্স ফি অস্বাভাবিক মাত্রায় বৃদ্ধি করায় খুলনা’র ব্যবসায়ীদের ভিতর যে চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে তার প্রেক্ষিতে ব্যবসায়ীদের কষ্টের কথা বিবেচনা করে ব্যবসায়ীদের দাবী অনুযায়ী ট্রেড লাইসেন্স ফি বৃদ্ধির প্রতিবাদে এবং বর্ধিত ট্রেড লাইসেন্স ফি বাতিল করার দাবীতে অদ্য ১৭ আগষ্ট, ২০১৫ তারিখ সকাল ১১ ০০ টায় খুলনা চেম্বার ভবনের সম্মুখে “মানববন্ধন” কর্মসূচী পালন করা হয়। এ মানববন্ধনে খুলনা চেম্বারের পরিচালনা পরিষদসহ শত শত ব্যবসায়ী অংশগ্রহণ করেছেন। মানববন্ধন কর্মসূচী পালনকালে খুলনা চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি কাজি আমিনুল হক পরিচালনা পরিষদ ও খুলনার সর্বস্তরের ব্যবসায়ী সম্প্রদায়ের পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন। তিনি বক্তব্যে বলেন যে, খুলনা সিটি কর্পোরেশন এলাকায় হঠাৎ করে বিভিন্ন শ্রেণীর ব্যবসায়ীদের ট্রেড লাইসেন্স ফি মাত্রাতিরিক্ত বৃদ্ধি করায় ব্যবসায়ীরা চরম হতাশাগ্রস্থ হয়ে পড়েছেন। দেশের অন্যান্য অঞ্চলের তুলনায় খুলনা অঞ্চল ব্যবসা-বাণিজ্যে অনেক পিছিয়ে থাকায় ব্যবসায়ীরা এমনিতেই নানবিধ সমস্যায় জর্জরিত। তার উপর ট্রেড লাইসেন্স ফি একবারে কয়েকগুণ বৃদ্ধি করায় এতদাঞ্চলের ব্যবসায়ী সম্প্রদায়সহ খুলনা চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করছে। খুলনা’র ব্যবসায়ীদের দুঃখ দুর্দশা বিবেচনা করে ব্যবসায়ীদের স্বার্থে বর্ধিত ট্রেড লাইসেন্স ফি কমিয়ে পূর্বের ফি বহাল করার ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য খুলনা চেম্বারের পক্ষ থেকে খুলনা সিটি কর্পোরেশন এর মেয়রসহ সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি সবিনয় অনুরোধ জানান। এ “মানববন্ধন” কর্মসূচীতে আরও উপস্থিত ছিলেন খুলনা চেম্বারের উর্দ্ধতন সহ-সভাপতি শরীফ আতিয়ার রহমান, সহ-সভাপতি মোঃ সাইফুল ইসলাম, সহ-সভাপতি গোপী কিষণ মুন্ধড়া, পরিচালকবৃন্দ আবুল বাসার পাটওয়ারী, এস এম ওবায়দুল্লাহ, এস এম সাইফুল ইসলাম পিয়াস, আলহাজ্ব মোঃ মোশাররফ হোসেন, মোঃ মোস্তফা কামাল পাশা, মোঃ তোফাজ্জেল হোসেন, মোঃ মফিদুল ইসলাম টুটুল, খান সাইফুল ইসলাম, এস এম খালিদ হোসেন, দীপক কুমার দাস এবং মোঃ ওহেদুজ্জামান খান পল্টু এর নেতৃত্বে খুলনা বিভাগীয় অভ্যন্তরীন নৌ পরিবহন মালিক গ্রুপ, কাজী নাসিবুল হাসান সান্নু এর নেতৃত্বে খুলনা ডিষ্ট্রিক্ট ইম্পোটার্স গ্রুপ, কাজী মোঃ নুরুল ইসলাম এর নেতৃত্বে খুলনা পোল্ট্রি ফিস ফিড ও দোকান মালিক গ্রুপ এবং খুলনা বিভাগীয় পোল্ট্রি শিল্প মালিক সমিতি, মোঃ আসাদুজ্জামান সেলিম ও আবু সাঈদ শেখ এর নেতৃত্বে খুলনা সম্মিলিত ব্যবসায়ী সংগঠন সমন্বয় পরিষদ, আলহাজ্ব শামসুর রহমান শেখ ও মোঃ গোলাম মোস্তফা দুলাল এর নেতৃত্বে খুলনা জেলা হকার্স এ্যাসোসিয়েশন, আলহাজ্ব এস এ গফুর এর নেতৃত্বে মংলা বন্দর মাষ্টার ষ্টিভেডরস এ্যাসোসিয়েশন, মোঃ সুলতান হোসেন খান ও মাহমুদ আহসান টিটো এর নেতৃত্বে মংলা কাষ্টমস ক্লিয়ারিং এন্ড ফরওয়ার্ডিং এজেন্টস এ্যাসোসিয়েশন, খুলনা সিমেন্ট আমদানীকারক মালিক গ্রুপ, আনোয়ারুল হক তারিক এর নেতৃত্বে বাংলাদেশ শিপিং এজেন্টস এ্যাসোসিয়েশন, সাইদ আহমেদ তুষার এর নেতৃত্বে মংলা বন্দর ব্যবহারকারী সমন্বয় কমিটি, শেখ সৈয়দ আলী এর নেতৃত্বে বাংলাদেশ জুট এ্যাসোসিয়েশন, শেখ মোশাররফ হোসেন এর নেতৃত্বে বৃহত্তর খুলনা উন্নয়ন সংগ্রাম সমন্বয় কমিটি, মোঃ মনিরুজ্জামান খান এর নেতৃত্বে বাংলাদেশ হার্ডওয়ার এন্ড মেশিনারী মার্চেন্টস এ্যাসোঃ, শেখ মাসুদুর রহমান গোরা এর নেতৃত্বে কেডিএ নিউ মার্কেট দোকান মালিক সমিতি, রেজাউল করিম খান এর নেতৃত্বে শের-ই-বাংলা বিপনী কেন্দ্র দোকান ঘর মালিক সমিতি, আব্দুস সাত্তার মাষ্টার ও শেখ আ ইকবাল তুহিন এর নেতৃত্বে খুলনা মেট্রোপলিটন ষ্টেশনারী ব্যবসায়ী সমিতি, মোঃ মোজাম্মেল হক ও এস এম কবির উদ্দিন বাবলু এর নেতৃত্বে বাংলাদেশ কেমিষ্ট এন্ড ড্রাগিষ্ট সমিতি, রফি আহমেদ বাবলা এর নেতৃত্বে খুলনা বড় বাজার সাধারণ ব্যবসায়ী মালিক সমিতি, মোঃ মফিজুল ইসলাম মফিজ এর নেতৃত্বে ষ্টেশন রোড ব্যবসায়ী বহুমুখী সমিতি, খুলনা জেলা সিমেন্ট ও লৌহজাত ব্যবসায়ী এসোসিয়েশন, আরিফ এর নেতৃত্বে খানজাহান আলী রোড দোকান মালিক সমিতি, বাবু নিমাই সরকার ও বাবু অশোক কুমার আঢ্য এর নেতৃত্বে বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতি, ডাঃ সওকাত আলী লস্কর এর নেতৃত্বে বাংলাদেশ প্রাঃ ক্লিনিক এন্ড ডায়গোনেষ্টিক ওনার্স এ্যাসোসিয়েশন, কৃষ্ণ কুমার মিত্র ভীম এর নেতৃত্বে হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী বিপনী কেন্দ্র ব্যবসায়ী সমিতি, আব্দুল হামিদ সরদারএর নেতৃত্বে খুলনা ফল আমদানীকারক ও ব্যবসায়ী সমিতি, মোঃ মুনিরুজ্জামান খান এর নেতৃত্বে খুলনা সদর ডাক বাংলা দোকান মালিক সমিতি, কাজী ইমামুল ইসলাম এর নেতৃত্বে মসিউর রহমান বিপনী কেন্দ্র দোকান মালিক সমিতি, সৈয়দ নুরুল ইসলাম মামুন ও মোঃ মনিরুল ইসলাম মাসুম এর নেতৃত্বে খুলনা বিপনী কেন্দ্র দোকান মালিক সমিতি, ফকির সাইফুল ইসলাম এর নেতৃত্বে খুলনা ক্যাবল ওনার্স এ্যাসোসিয়েশন, মোঃ সোলায়মান তৈয়ব এর নেতৃত্বে খুলনা বাজার ক্লথ মার্চেন্ট এ্যাসোসিয়েশন, আলহাজ্ব মোঃ ইয়াসিন এর নেতৃত্বে খুলনা বাজার ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী সমিতি, মোঃ তমিজ উদ্দিন হাসু এর নেতৃত্বে খুলনা সাইকেল পার্টস ব্যবসায়ী মালিক সমিতি, মোঃ ফারুক হোসেন এর নেতৃত্বে হ্যানিমান মার্কেট দোকান মালিক সমিতি, এস এম মনিরুজ্জামান সাগর এর নেতৃত্বে এস এম এ রব শপিং কমপ্লেক্স, দিদারুল ইসলাম বাচ্চু এর নেতৃত্বে খুলনা বিপনী বিতান, মোঃ আব্দুর রব মাষ্টার এর নেতৃত্বে বড়বাজার কাঁচা ও পাকা মাল আড়ৎদার সমিতি, সাইদুর রহমান সাইদ এর নেতৃত্বে খালিশপুর বাজার বনিক সমিতি, মোঃ দেলোয়ার হোসেন উজ্জ্বল এর নেতৃত্বে খুলনা শপিং কমপ্লেক্স, শমশের আলী মিন্টু এর নেতৃত্বে আক্তার চেম্বার দোকান মালিক সমিতি, আশরাফুল টুয়েল এর নেতৃত্বে জলিল মার্কেট দোকান মালিক সমিতি, পলাশ কুমার দে এর নেতৃত্বে পৌর সুপার মার্কেট দোকান মালিক সমিতি, আলহাজ্ব এমারত হোসেন খাঁন এর নেতৃত্বে শহীদ এ্যাডঃ আঃ জব্বার বিপনী বিতান ব্যবসায়ী সমিতি, এ টি এম রফিক এর নেতৃত্বে হাজী এ মালেক চেম্বার দোকান মালিক সমিতি, চন্ডি ভট্টাচার্য্য এর নেতৃত্বে কাজী নজরুল ইসলাম মার্কেট ব্যবসায়ী সমিতি, মাহাবুবুর রহমান খোকন এর নেতৃত্বে বৃহত্তর আমরা খুলনাবাসী, আলহাজ্ব আঃ গফুর এর নেতৃত্বে বৃহত্তর খুলনা পোষাক প্রস্তুতকারক মালিক সমিতিসহ অন্যান্য সমিতির নেতৃবৃন্দ।

ঢাক জয়েন্ট-স্টকের রেজিষ্ট্রার বিজন কুমার বৈশ্য এর সাথে খুলনা চেম্বারের পরিচালনা পরিষদের মতবিনিময়

kcci-30-05-13

৩০-৫-২০১৩ তারিখ বেলা ১২-০০টায় খুলনা চেম্বারের সভাকক্ষে যৌথ মূলধন কোম্পানী ও ফার্মসমূহের রেজিষ্ট্রারের কার্যালয়, ঢাকা এর রেজিষ্ট্রার জনাব বিজন কুমার বৈশ্য এর সঙ্গে খুলনা চেম্বারের পরিচালনা পরিষদ ও এতদাঞ্চলের ব্যবসায়ীবৃন্দের সাথে এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত সভায় সভাপতিত্ব করেন খুলনা চেম্বারের সভাপতি জানব কাজি আমিনুল হক। মতবিনিময় সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন যৌথ মূলধন কোম্পানী ও ফার্মসমূহের রেজিষ্ট্রারের কার্যালয়, খুলনা এর এ্যাসিসটেন্ট রেজিষ্ট্রার জনাব আব্দুর রাজ্জাক হাওলাদার। খুলনা চেম্বারের সভাপতি তার বক্তব্যে বলেন যৌথ মূলধন কোম্পানী ও ফার্মসমূহের রেজিষ্ট্রারের খুলনার বর্তমান কার্যালয়টি পরিচ্ছন্ন পরিবেশে না হওয়ায় ব্যবসায়ীরা অফিসটি শহরের মধ্যে একটি পরিচ্ছন্ন জায়গায় স্থানান্তরের দাবী জানিয়েছেন। প্রয়োজনে খুলনা চেম্বারের নিজস্ব ভবন “চেম্বার ম্যানসনে” উক্ত অফিস স্থানান্তরের ব্যবস্থা করে দেওয়া হবে বলেও রেজিষ্ট্রার মহোদয়ের নিকট সভাপতি প্রস্তাব রাখেন। যৌথ মূলধন কোম্পানী ও ফার্মসমূহের রেজিষ্ট্রারের কার্যালয়, খুলনায় লোকবল অনেক কম ও স্থায়ীভাবে কোন উর্দ্ধতন কর্মকর্তা না থাকায় প্রয়োজনীয় কাগজপত্র ঢাকা অফিস থেকে অনুমোদন হয়ে আসতে দীর্ঘসময় ব্যয় হওয়ার অসুবিধা উল্লেখ করে যথাশীঘ্র খুলনা অফিসে স্থায়ী উর্দ্ধতন কর্মকর্তা নিয়োগ ও লোকবল বৃদ্ধির ক্ষেত্রে রেজিষ্ট্রার মহোদয়ের হস্তক্ষেপ কামনা করা হয়। সভাপতি আরও উল্লেখ করেন যে অনেক ব্যবসায়ীরা নতুন কোম্পানী ও ফার্মসমূহের নামে রেজিষ্ট্রেশন করার পর কোন কোন ক্ষেত্রে ব্যবসা পরিচালনা করা সম্ভবপর না হলে রেজিষ্ট্রার খাতা থেকে উক্ত কোম্পানী বা ফার্মের নাম কাটানোর ইচ্ছা পোষন করলেও তা করা হয় না। বরং যৌথ মূলধন কোম্পানী ও ফার্মসমূহের রেজিষ্ট্রারের কার্যালয়ের বিধান অনুযায়ী প্রতি বছরই রেজিষ্ট্রেশন করতে হয় এবং রিটার্ণ জমা দিতে হয় যা ব্যবসায়ীদের ভুগান্তির সৃষ্টি করে। তাই সভাপতি মহোদয় ব্যবসায়ীদেরকে এ ধরনের ভুগান্তির হাত থেকে রক্ষা করার জন্য বন্ধ হয়ে যাওয়া কোম্পানী ও ফার্মসমূহের নাম যাতে রেজিষ্ট্রেশন খাতা থেকে কেটে দেওয়া হয় সেদিকে দৃষ্টি রাখার জন্য রেজিষ্ট্রার মহোদয়ের প্রতি অনুরোধ জানান। রেজিষ্ট্রার মহোদয় জনাব বিজন কুমার বৈশ্য তার বক্তব্যে যথাশীঘ্র সম্ভব ভাল পরিবেশ ও বাণিজ্যিক এলাকায় খুলনার অফিসটি স্থানান্তর ও এ অফিসে অধিক লোকবল নিয়োগ করা হবে বলে আশ্বাস প্রদান করেন এবং ব্যবসায়ীদের কাজের সুবিধার্থে বর্তমান সরকারের নতুনভাবে কোম্পানী আইন প্রনয়নের পরিকল্পনার বিষয়টি উল্লেখ করেন। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন খুলনা চেম্বারের উর্দ্ধতন সহ-সভাপতি জনাব শেখ আসাদুর রহমান, সহ-সভাপতি জনাব মোঃ সাইফুল ইসলাম, সহ-সভাপতি জনাব মোঃ ওমর ফারুক মিঠু ও পরিচালকবৃন্দ সর্বজনাব আবুল বাসার পাটওয়ারী, এম এ মতিন পান্না, কাজী মাসুদুল ইসলাম, এস এম ওবায়দুল্লাহ, মোঃ হাফিজুল ইসলাম চন্দন, মোঃ এমদাদুল হক খালাসী, মোঃ মোস্তফা জেসান ভূট্টো, শেখ মোঃ গাউসুল আজম, খান সাইফুল ইসলাম, দীপক কুমার দাস, ও এস এম সাইফুল ইসলাম পিয়াস। আরও উপস্থিত ছিলেন খুলনা অঞ্চলের বিশিষ্ট ব্যবসায়ীবৃন্দ সর্বজনাব এ্যাডভোকে নীল কমল বিশ্বাস, এস এম আকবর হোসেন, কাজী গোলাম ফারুক, মাহাবুবুর রহমান পিনু, শংকর কর্মকার, নিমাই সরকার, কাজী এনায়েত কবীর ডন, মোঃ ওলিউর রহমান এবং প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক্স মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ।

ঢাকার সাভারে রানা প্লাজা ধ্বসে হতাহতের ঘটনায় খুলনা চেম্বারের সমবেদনা ও দুঃখ প্রকাশ

kcci-savar-doa-mahfilগত ২৪-৪-২০১৩ তারিখ আনুমানিক সকাল ৮-৩০টায় ঢাকার সাভারে অবস্থিত ৯ম তলা বিশিষ্ট রানা প্লাজা হঠাৎ ধ্বসে পড়ায় কয়েকশত লোকের প্রাণহানী ঘটেছে এবং কয়েক হাজার লোক আহত হয়েছে। উক্ত ঘটনায় দুঃখ প্রকাশ করে নিহতদের রুহের মাগফেরাত ও আহতদের সুস্থ্যতা কামনা করে খুলনা চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির পক্ষ থেকে আল্লাহ্ রাব্বুল আল আমিন এর দরবারে দোয়া ও মোনাজাত করা হয়। দোয়া মাহফিলে উপস্থিত ছিলেন খুলনা চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি জনাব কাজি আমিনুল হক, উর্দ্ধতন সহ-সভাপতি জনাব শেখ আসাদুর রহমান, সহ-সভাপতি আলহাজ্ব মোঃ সাইফুল ইসলাম, সহ-সভাপতি জনাব মোঃ ওমর ফারুক মিঠু ও পরিচালকবৃন্দ সর্বজনাব আবুল বাসার পাটওয়ারী, এম এ মতিন পান্না, শেখ মাহাবুব রহমান, কাজী মাসুদুল ইসলাম, এস এম ওবায়দুল্লাহ, মোঃ হাফিজুল ইসলাম চন্দন, মোঃ এমদাদুল হক খালাসী, মোঃ তোফাজ্জেল হোসেন, মোঃ সিরাজুল হক, আলহাজ্ব মোঃ মোশাররফ হোসেন, মোঃ মোস্তফা জেসান ভূট্টো, শেখ মোঃ গাউসুল আজম, এস এম খালিদ হোসেন, মোঃ আমিনুল ইসলাম মুন্না, খান সাইফুল ইসলাম, দীপক কুমার দাস, এস এম নজরুল ইসলাম, ফরহাদ আহম্মেদ আকন্দ পম্পি, গোপী কিষণ মুন্ধড়া ও এস এম সাইফুল ইসলাম পিয়াস এবং খুলনা চেম্বারের কর্মকর্তা কর্মচারীবৃন্দ।

== o ==

ভারতীয় হাই কমিশনার পঙ্কজ সরণ-এর সাথে খুলনা চেম্বারের ব্যবসা-বাণিজ্য উন্নয়ন সংক্রান্ত মতবিনিময় সভা

kcci-120413-indian amasedor

বাংলাদেশস্থ ভারতীয় হাই কমিশনের মহামান্য হাই কমিশনার পঙ্কজ সরণ দ্বি-পাক্ষিক শিল্প ও ব্যবসা বাণিজ্যের উন্নয়নসহ অন্যান্য বিষয়ে অদ্য ১২-০৪-২০১৩ তারিখ রোজ শুক্রবার সন্ধ্যা ৬-৩০ টায় খুলনা চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির পরিচালনা পরিষদসহ বিশিষ্ট আমদানীকারক, রপ্তানীকারক, ব্যবসায়ী ও শিল্পপতিদের সঙ্গে খুলনা চেম্বারের সম্মেলন কক্ষে এক আলোচনা সভায় মিলিত হন। খুলনা চেম্বারের সভাপতি জনাব কাজি আমিনুল হক এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বৈঠকে খুলনা চেম্বারের পক্ষ থেকে বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে সুসম্পর্কের কথা উল্লেখ করে উভয় দেশের বাণিজ্য সম্প্রসারন, পাট ও পাটজাত দ্রব্য ভারতীয় বাজারে প্রবেশ, বিদ্যুৎ, রেলওয়ে ইত্যাদি বিষয়ে মহামান্য হাই কমিশনার এর সঙ্গে আলোচনা হয়। উক্ত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন যশোর-৫ আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য জনাব খান টিপু সুলতান। বিশেষ অতিথি হিসেবে আরও উপস্থিত ছিলেন ভারতীয় হাই কমিশনের ইকোনোমিক এন্ড প্রজেক্টস এর ফার্ষ্ট সেক্রেটারী জনাব আর মাসাকুই। খুলনা চেম্বার সভাপতি তার বক্তব্যে খুলনায় ভারতীয় ভিসা অফিস স্থাপন, খুলনা অঞ্চলের ব্যবসায়ীদেরকে ৬ মাসের স্থলে ৫ বছরের জন্য মাল্টিপোল এন্ট্রি বিজনেস ভিসা প্রদান, খুলনায় মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের অসহায় ও মেধাবী ছাত্র ছাত্রীদের বৃত্তি প্রদানের মত সরাসরি মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহন করেনি কিন্তু স্বাধীনতার চেতনায় বিশ্বাসী ও স্বাধীনতার পক্ষে এমন কিছু পরিবারের অসহায় ও মেধাবী       সন্তানদেরও বৃত্তি প্রদানের মাধ্যমে সহায়তা করার জন্য মহামান্য হাই কমিশনারের নিকট সবিনয় অনুরোধ জানান। মহামান্য হাই কমিশনার মাননীয় সভাপতির বক্তব্য মনোযোগ সহকারে শোনেন এবং উল্লেখিত ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে আশ্বাস প্রদান করেন। তিনি আরও উল্লেখ করেন যে খুলনায় রেলওয়েখাত, বিদ্যুৎ খাত এবং ত্রানখাতসহ ক্ষুদ্র উন্নয়ন প্রকল্পসমূহের জন্য ভারত সরকার বিপুল পরিমান অর্থ ঋণ সহায়তা প্রদানের পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন খুলনা চেম্বারের উর্দ্ধতন সহ-সভাপতি জনাব শেখ আসাদুর রহমান, সহ-সভাপতি জনাব মোঃ সাইফুল ইসলাম, জনাব মোঃ ওমর ফারুক মিঠু পরিচালকবৃন্দ সর্বজনাব আবুল বাসার পাটওয়ারী, এম এ মতিন পান্না, শেখ মাহাবুব রহমান, কাজী মাসুদুল ইসলাম, এস এম ওবায়দুল্লাহ, মোঃ হাফিজুল ইসলাম চন্দন, মোঃ এমদাদুল হক খালাসী, মোঃ তোফাজ্জেল হোসেন, মোঃ সিরাজুল হক, মোঃ মোস্তফা জেসান ভুট্টো, শেখ মোঃ গাউসুল আজম, এস এম খালিদ হোসেন, খান সাইফুল ইসলাম, দীপক কুমার দাস, এস এম সাইফুল ইসলাম পিয়াস এবং খুলনা অঞ্চলের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী, আমদানী ও রপ্তানীকারকগণ।

Chamber Mansion, 5, K.D.A. Commercial Area, Jessore Road, Khulna-9100, Bangladesh.

PHONE: 880 41 721745, 2830245 PABX: 880 41 721695, 723386, 2830243, FAX:+88 041 725635

E-mail: This email address is being protected from spambots. You need JavaScript enabled to view it.
Copyright © 2012, KCCI. Site Design By: Khulna Link

Tuesday the 17th. Design by QualityJoomlaTemplates.